বাবা_জীবনে_এমন_মন্ত্রী_দেখিনি

আলোচিত সংবাদ, মতামত

বাবা_জীবনে_এমন_মন্ত্রী_দেখিনি,,,,,,,,,,!!!

২০০২ সালের ঘটনা দিনটি ছিলো জুমআবার। বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন এর কেন্দ্রীয় দ্বিবার্ষিক সম্মেলন ঢাকার মতিঝিল বালক উচ্চবিদ্যালয় মাঠে। প্রধান অতিথি মাননীয় কৃষিমন্ত্রী ও বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর মুহতারাম আমীর মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী। প্রধান অতিথি সম্মেলনস্থলে আগমন করলেন স্বাভাবিকভাবে। স্কুল গেইটের সামনে কয়েকজন পুলিশ মন্ত্রীর নিরাপত্তায় সুশৃঙ্খলভাবে দায়িত্ব পালনে ব্যস্ত। মুহতারাম আমীরে জামায়াতের বক্তব্য শেষ হওয়ার পর স্কুলের অফিসে নিয়ে যাওয়া হলো নাস্তার জন্য।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যের পর সবাইকে বলা হলো বায়তুল মোকাররমে জুমার নামাজ আদায় করার জন্য সবাই মিছিলসহকারে চলে গেলেন। আমি রাতে ঘুম না হওয়াতে কিছুটা অসুস্থতার কারণে মিছিলের সাথে যাইনি। রাস্তার পাশে স্কুলের একটি রুমে কিছুটা বিশ্রাম নিচ্ছিলাম। হঠাৎ দেখলাম একজন উচ্চশিক্ষিত ভদ্রলোক {মন্ত্রী মহোদয়ের পিএস) ২ হাতে ২ প্লেটে আপেল ও আঙ্গুর নিয়ে ডিউটিতে ব্যস্ত পুলিশদের উদ্দেশ্য প্লেট ২টি এগিয়ে বলছেন আপনাদেরই কৃষিমন্ত্রী তিনির নাস্তা থেকে কিছু আপনাদেরকে দিয়েছেন খাওয়ার জন্য। উপস্থিত পুলিশরা কিংকর্তব্যমূড় হয়ে প্লেটের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন। এক পর্যায়ে প্লেট হাতে নিয়ে খেতে দেখলাম!

মাননীয় কৃষিমন্ত্রী চলে যাওয়ার পর আমি নামাজের জন্য রুম থেকে বের হয়ে মসজিদে যাওয়ার সময় ডিউটিরত ৬০ উর্ধ্বের বয়স্ক পুলিশকে বললাম একটু আগে দেখলাম আপেল ও আঙ্গুর খেলেন তা কে পাঠিয়েছেন? পুলিশ জোরে একটা স্বাস নিয়ে আমাকে বললেন বাবা- এরশাদ, খালেদা ও হাসিনাসহ কতজনের নিরাপত্তার খাতিরে ডিউটি করলাম কিন্তু কোনদিন আমাদের মতো সামান্য পুলিশকে কেউ এভাবে তার সম্মানে আয়োজিত নাস্তা থেকে আমাদেরকে খেতে দিয়েছে!!! #বাবারে_জীবনে_এমন_মন্ত্রী_আমি_দেখিনি!!!!!

পুলিশ একটু আক্ষেপের সূরে বললেন- বাবারে এই ধরনের সোনার মানুষ মন্ত্রী এমপি হলে আমাদের দেশটা সোনার বাংলায় পরিণত হতো। উনি শুনছি জামায়াতের আমীর নাকি! যদি একটা দলের প্রধান এমন আচরণ করতে পারে তাহলে এই দলের মাধ্যমে একদিন এদেশে ইসলাম কায়েম হবে, দেশ সোনার বাংলায় পরিণত হবে আমি বিশ্বাস করি।

#হে_আল্লাহ_মুহতারাম_আমীরে_জামায়াতের_শাহাদাতকে_বাংলাদেশের_ইসলামী_আন্দোলনের_বিজয়_কবুল_করুণ।