লাইভ আপডেট: ওয়ার্নারকে জীবন দিলেন সাব্বির

খেলা, জাতীয়

বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়া

ওয়ার্নারকে জীবন দিলেন সাব্বির

অস্ট্রেলিয়া রানের চাকা সচল থাকলেও বাংলাদেশের বোলিংয়ের শুরুটা একেবারে মন্দ হয়নি। নতুন বলে একপ্রান্ত থেকে আক্রমণে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। আরেকপ্রান্ত থেকে মোস্তাফিজুর রহমান। উইকেট থেকে বেশ বাউন্স আদায় করে নিচ্ছেন কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ।

তবে শুরুতেই অসিদের চাপে ফেলার একটি দারুণ সুযোগ হাতছাড়া হয়েছে বাংলাদেশের। মাশরাফির করা ইনিংসের পঞ্চম ওভারের শেষ বলে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে ডেভিড ওয়ার্নারের ক্যাচ ফেলে দিয়েছেন এ ম্যাচের একাদশে ফেরা সাব্বির রহমান। তখন ওয়ার্নার ১০ রানে ব্যাট করছিলেন।

এই প্রতিবেদন লেখার সময়, ৬ ওভার শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৩১ রান। ক্রিজে আছেন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ১৫ ও ডেভিড ওয়ার্নার ১৩ রানে।

তিন পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছে অস্ট্রেলিয়া

ইনজুরি কাটিয়ে একাদশে ফিরেছেন অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস। ফিরেছেন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বিশ্রাম পাওয়া পেসার নাথান কোল্টার-নাইলও। এছাড়া বাংলাদেশের লেগস্পিন দুর্বলতার কথা ভেবে ফিরিয়েছেন অ্যাডাম জাম্পাকেও। তাদের জায়গা দিতে বাদ পড়েছেন শন মার্শ, কেন রিচার্ডসন ও জ্যাসন বেহরেনডর্ফ।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ: অ্যারন ফিঞ্চ, ডেভিড ওয়ার্নার, স্টিভেন স্মিথ, উসমান খাওয়াজা, মার্কাস স্টয়নিস, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, অ্যালেক্স ক্যারি, নাথান কোল্টার-নাইল, মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্স ও অ্যাডাম জাম্পা।

বাংলাদেশের একাদশে দুটি পরিবর্তন

টাইগারদের একাদশে পরিবর্তন এসেছে দুটি। মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে নিয়ে ছিল অনিশ্চয়তা। পিঠে চোট পাওয়ার শেষ পর্যন্ত ম্যাচে পাওয়াই গেল না এ দারুণ ছন্দে থাকা পেস অলরাউন্ডারকে। তাতে ভাগ্য খুলেছে রুবেল হোসেনের। ফিটনেস ঘাটতি থাকায় স্পিন অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেনের পরিবর্তে খেলছেন সাব্বির রহমান।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, লিটন কুমার দাস, মাহমুদউল্লাহ, সাব্বির রহমান, রুবেল হোসেন, মাশরাফি বিন মর্তুজা, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মোস্তাফিজুর রহমান।

আবহাওয়া বলছে নির্বিঘ্নে খেলা হবে

আগের দিন অনুশীলনের সময় ঝিরিঝিরি বৃষ্টি পড়ছিল। সারাদিনই ছিল আকাশ মেঘলা। কিন্তু বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের দিন সকাল থেকেই নটিংহ্যামের আকাশ ফুরফুরে। দেখা মিলল কড়া রোদের। পূর্ভাবাস বলছে, আকাশে মেঘের আনাগোনা থাকলেও তা বৃষ্টি হয়ে ঝরার সম্ভাবনা কম।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়া

সেমিফাইনালে খেলার স্বপ্নটা টিকিয়ে রাখতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জয় চাই টাইগারদের। গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচে টস জিতে নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া দলের অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। বেছে নিয়েছেন ব্যাটিং। মানে আগে ফিল্ডিং করতে হবে টাইগারদের। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে ৩টায়।

নতুন মাইলফলকের সামনে সাকিব

বাংলাদেশী ক্রিকেটার হিসেবে বিশ্বকাপে এক হাজারী ক্লাবে ঢুকতে আর মাত্র ২৬ রান চাই সাকিব আল হাসানের। শুধু তাই নয়, সঙ্গে ২টি উইকেট নিতে পারলে বিশ্বকাপের একমাত্র প্লেয়ার হিসেবে ১০০০ রান ও ৩০ উইকেটের মালিক হবেন তিনি। নিজের শেষ পাঁচ ওয়ানডেতেই পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস খেলেছেন সাকিব। তামিম ইকবাল ২০১২ সালে টানা পাঁচ ইনিংসে পঞ্চাশোর্ধ্ব রান করেছিলেন। তবে টানা ছয় ইনিংসে ৫০+ রান করার রেকর্ড বাংলাদেশের কারও নেই। এবারে তামিমকে ছাড়িয়ে যাওয়ার পাশাপাশি নতুন রেকর্ড গড়ার সুযোগ সাকিবের সামনে। টানা তিনটি সেঞ্চুরি হাঁকানোর কীর্তি নেই বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের। তাকে হাতছানি দিচ্ছে হ্যাটট্রিক সেঞ্চুরি।

সেমির স্বপ্নে অসিদের হারাতে প্রত্যয়ী বাংলাদেশ

টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর মধ্যে কেবল অস্ট্রেলিয়াকেই ওয়ানডেতে একাধিকবার হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। একমাত্র জয়টা অবশ্য ঐতিহাসিক। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথচলার শুরুর দিকের সেই জয় নানা কারণেই স্মরণীয় হয়ে আছে বাংলাদেশের জন্য। ২০০৫ সালের ১৮ জুন ওয়েলসের কার্ডিফে যখন জয়ের আনন্দে মেতেছিলেন দলের ক্রিকেটাররা, তখন অসিরা ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর দল!

এরপর কেটে গেছে ১৪ বছর। অস্ট্রেলিয়াকে আর হারানো হয়নি বাংলাদেশের। তবে এটা সত্য যে, দ্বীপদেশটির বিপক্ষে খুব বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগও হয়নি টাইগারদের। ওয়ানডে মর্যাদা পাওয়ার পর সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত ২০টি ম্যাচে অসিদের মোকাবেলা করেছে বাংলাদেশ। সবশেষ সাত বছরে মাত্র দুবার মুখোমুখি হয়েছে দুদল। দুটি ম্যাচই পরিত্যক্ত হয় বৃষ্টির কারণে।

পরিসংখ্যানের হিসাবনিকাশ ঠেলে এদিন নটিংহ্যামের ট্রেন্ট ব্রিজে বাংলাদেশকে পাড়ি দিতে হবে অস্ট্রেলিয়া নামক পরীক্ষা। মাশরাফি বিন মর্তুজার দল জয় না পেলেও প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে খেলার সম্ভাবনা কাগজে-কলমে টিকে ঠিকই থাকবে। কঠিন হলেও অসিদের হারানো অসম্ভব নয় বলেই মনে করছেন অধিনায়ক, ‘কালকে আমরা যখন মাঠে নামব, অবশ্যই ওরা আমাদের  সফরে ডাকবে কিনা এসব মাথায় থাকবে না। কেবল ভাবনায় থাকবে যে দল হিসেবে আমাদের ভালো খেলতে হবে, বিশ্বকাপে টিকে থাকতে হবে। বিশ্বকে দেখিয়ে দিতে হবে যে আমরা উন্নতি করছি। আগের চেয়ে এখন অনেক ভালো দল। অস্ট্রেলিয়াকে হারানো কঠিন, তবে অসম্ভব নয়।’