ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত; পীযুষকে গ্রেফতার দাবি অধ্যক্ষ ইউনুছ আহমদের

আলোচিত সংবাদ

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত; পীযুষকে গ্রেফতার দাবি অধ্যক্ষ ইউনুছ আহমদের

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ দাড়ি রাখা, টাখনুর উপর কাপড় পড়া “জঙ্গী লক্ষণ” সম্প্রীতি বাংলাদেশ নামক সংগঠনের আহ্বায়ক পীযুষ বন্দোপাধ্যায় এধরণের বিজ্ঞাপনে গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

শতকরা ৯৩% মুসলমানের দেশে আমাদের প্রিয় নবী হুযূর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নাত নিয়ে বেয়াদবী করার স্পর্ধা দেখাবে আর মুসলমানরা নিরবে বসে থাকবে তা হতে পারে না।

এধরণের ঔদ্ধত্যপূর্ণ উক্তি কোনভাবেই মানা যায়না। এই বেয়াদবীর চরম শাস্তি হতে হবে। একজন হিন্দু সম্প্রদায়ের ব্যক্তি ৯৩ ভাগ মুসলমানের ঈমান ও আমল নিয়ে বেয়াদবি করবে এটা মুসলমান দেখবে তা হতে পারে না।

তিনি অবিলম্বে ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত হানার কারণে পীযুষ বন্দোপাধ্যায়ের সম্প্রীতি বাংলাদেশ নামক সংগঠনের আহবায়ক পীযুষকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

গতকাল এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ইসলামের আবশ্যক পালনীয় দাড়ি রাখা, টাখনুর উপর কাপড় পড়া সহ বেশ কিছু লক্ষণকে জঙ্গী লক্ষণ হিসেবে তুলে ধরে পীযুষরা বাংলাদেশের সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে ভারতীয় এজেন্ডা বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছে।

সম্প্রীতি বাংলাদেশ নামক সংগঠনের আহ্বায়ক পীযুষ বন্দোপাধ্যায় এই বিজ্ঞাপন প্রচার করে ইসলাম ও মুসলমানের হৃদয়ে প্রতিবাদের আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে।

অশালিন পোশাকে চলাফেরার কারনে মালয়েশিয়ার ৩৯ নারীকে চপেটাঘাত

রাজ্যের ইসলামবিষয়ক ও ধর্ম বিভাগ (জাহেক) এই শাস্তি বাস্তবায়ন করেছে বলে সোমবার খবর দিয়েছে মালয়েশিয়ার নিউ স্টেইট টাইমস। জাহেকের সহকারী প্রধান পরিচালক (শরিয়াহ ও আইন বিভাগ) মোহাম্মদ ফাদজুলি জেইন বলেন,

‘নোটিস করার পর রোববার ৯ ঘণ্টার অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওই নারীদের চপেটাঘাত করা হয়।’ তিনি বলেন, ‘জাহেক, কোটা বারু সিটি করপোরেশন, সমাজকল্যাণ বিভাগ ও পুলিশের ৭০ সদস্য সকাল ১০টায় বিভিন্ন এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করে। চলে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত।’

ফাদজুলি জেইন বলেন, ‘অভিযানকালে চপেটাঘাতের পর ৩৯ নারীকে কাউন্সেলিং করা হয়। এ সময় আরও ৮ নারীকে জনসম্মুখে যৌন আবেদনময়ী পোশাক না পরার আইন বিষয়ে সতর্ক করা হয়।’ এ ধরনের অভিযান অব্যাহত রাখা হবে বলেও জানান তিনি।

নোটিস করার পরও মালয়েশিয়ায় জনসম্মুখে অশালীন পোশাক পরায় ৩৯ নারীকে চপেটাঘাত করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার উত্তর-পূর্বের কেলানতান রাজ্যে রোববার এ শাস্তি কার্যকর করা হয়। সূত্র: পরিবর্তন