ছাত্রলীগ নেতা-নেত্রীদের গোপন তথ্য ও ছবি ফাঁসের হিড়িক

এক্সক্লুসিভ

কেন্দ্রীয় সম্মেলনের বছর খানেক পর ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করেছে ছাত্রলীগ। তবে, নবগঠিত কমিটি ঘোষণা করার পর পরই দলের মধ্যে শুরু হয়েছে দ্বন্দ্ব। পদবঞ্চিতরা একের পর এক অভিযোগ তুলছেন সদ্য পদ পাওয়া সদস্যদের বিরুদ্ধে। উঠে আসছে পেছনের অনেক অজানা ঘটনা।

নতুন কমিটি নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। সংগঠনের সাংবিধানিক নিয়ম ভেঙ্গে কমিটি গঠনের অভিযোগ করছেন অনেকেই। বিবাহিত, ছাত্রজীবন শেষ, মাদকাসক্ত, বহিরাগত, প্রশ্নফাঁসসহ নানা উভিযোগ আসছে সদ্য পদ পাওয়া সদস্যদের বিরুদ্ধে।

ক্যাম্পাসে দায়িত্ব পালনকালে যার যত অজানা গোপন তথ্য আছে কেন্দ্রীয় কমিটিতে পদ পাওয়ার পর তা ফাঁস করে দিচ্ছে পদবঞ্চিতরা। এমনকি ব্যক্তিগত ছবি ফাঁস করে তা ভাইরাল করা হচ্ছে ফেসবুকে।

ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ৫-এর ‘গ’ ধারা অনুযায়ী বিবাহিত ব্যক্তি ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাবেন না। কিন্তু ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের স্ত্রীসহ ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

সভাপতির ছবি আপলোড করে পদবঞ্চিত নেতারা ছাড়াও বিভিন্ন পর্যায়ের অনেকেই বলছেন, ‘কেন্দ্রীয় সভাপতিই যদি বিয়ে করে নিজ পদে বহাল থাকেন, তাহলে সংগঠনের অবস্থা তো এমন হবেই।’

এছাড়াও ছাত্রলীগের একাধিক মহিলা নেত্রীর স্বামীসহ ও ব্যক্তিগত ছবি ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে যাচ্ছে ফেসবুকে। এসব ছবি আপলোড করে সমালোচনা করছেন বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও ব্যক্তিরা।

এমআই